তারাবী ২০ রাকাত নাকি ৮ রাকাত??

তারাবী ২০ রাকাত (শেয়ার
করে ছড়িয়ে দিন)
স্পষ্ট ভাষায় অল্প কথায় বলতে চাই:
তারাবী ২০ রাকাত।
সেই-যে হযরত উমরের যুগ থেকে ২০
রাকাতের প্রচলন শুরু হয়েছিলো, সে পুণ্য
ধারাবাহিকতা এখনো চলছে, চলবে, চলতেই
থাকবে।
যে বলবে: ৮ রাকাত, ২০ রাকাত
বিদআত, তাকে বলবো বিনয়ের সাথে: হযরত
উমর যা চালু করে গেছেন তা বিদআত হয়
কী করে? হযরত উমর কে? দ্বিতীয় খলীফা।
খোলাফায়ে রাশিদীনের অন্যতম সদস্য।
আল্লাহর রাসূল বলে গেছেন: ‘তোমরা আমার
এবং আমার পরবর্তীতে সুপথপ্রাপ্ত
খোলাফায়ে রাশিদীনের সুন্নত
আকড়ে থাকবে।’ বিস্তারিত হাদীস লক্ষ্য করুন:
ﻋﻦ ﺍﻟﻌﺮﺑﺎﺽ ﺑﻦ ﺳﺎﺭﻳﺔ ﻗﺎﻝ ” ﺛﻢ ﻭﻋﻈﻨﺎ ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﺻﻠﻰ ﺍﻟﻠﻪ
ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﻳﻮﻣﺎ ﺑﻌﺪ ﺻﻼﺓ ﺍﻟﻐﺪﺍﺓ ﻣﻮﻋﻈﺔ ﺑﻠﻴﻐﺔ ﺫﺭﻓﺖ ﻣﻨﻬﺎ
ﺍﻟﻌﻴﻮﻥ ﻭﻭﺟﻠﺖ ﻣﻨﻬﺎ ﺍﻟﻘﻠﻮﺏ ﻓﻘﺎﻝ ﺭﺟﻞ ﺇﻥ ﻫﺬﻩ ﻣﻮﻋﻈﺔ ﻣﻮﺩﻉ
ﻓﻤﺎﺫﺍ ﺗﻌﻬﺪ ﺇﻟﻴﻨﺎ ﻳﺎ ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﻗﺎﻝ ﺃﻭﺻﻴﻜﻢ ﺑﺘﻘﻮﻯ ﺍﻟﻠﻪ ﻭﺍﻟﺴﻤﻊ
ﻭﺍﻟﻄﺎﻋﺔ ﻭﺇﻥ ﻋﺒﺪ ﺣﺒﺸﻲ ﻓﺈﻧﻪ ﻣﻦ ﻳﻌﺶ ﻣﻨﻜﻢ ﻳﺮﻯ ﺍﺧﺘﻼﻓﺎ
ﻛﺜﻴﺮﺍ ﻭﺇﻳﺎﻛﻢ ﻭﻣﺤﺪﺛﺎﺕ ﺍﻷﻣﻮﺭ ﻓﺈﻧﻬﺎ ﺿﻼﻟﺔ ﻓﻤﻦ ﺃﺩﺭﻙ ﺫﻟﻚ ﻣﻨﻜﻢ
ﻓﻌﻠﻴﻜﻢ ﺑﺴﻨﺘﻲ ﻭﺳﻨﺔ ﺍﻟﺨﻠﻔﺎﺀ ﺍﻟﺮﺍﺷﺪﻳﻦ ﺍﻟﻤﻬﺪﻳﻴﻦ ﻋﻀﻮﺍ ﻋﻠﻴﻬﺎ
ﺑﺎﻟﻨﻮﺍﺟﺬ ”
ﺭﻭﻱ ﻫﺬﺍ ﺍﻟﺤﺪﻳﺚ ﻣﻦ ﻃﺮﻕ ﻣﻦ ﺃﺷﻬﺮﻫﺎ
ﻣﺎ ﺃﺧﺮﺟﻪ ﺍﺑﻦ ﻣﺎﺟﻪ ﻓﻲ ﺳﻨﻨﻪ ‏(42 ‏) ﻭﺍﺑﻦ ﺃﺑﻲ ﻋﺎﺻﻢ ﻓﻲ ﺍﻟﺴﻨﺔ
‏(26 ‏) ﻭ ‏(55 ‏) ﻭ ‏( 1038 ‏) ﻭﺍﻟﻤﺮﻭﺯﻱ ﻓﻲ ﺍﻟﺴﻨﺔ ‏( ﺭﻗﻢ27 ‏) ﻭﺍﻟﺒﺰﺍﺭ ﻓﻲ
ﻣﺴﻨﺪﻩ ‏(ﻕ 219/ ‏) ﻭﺗﻤﺎﻡ ﺍﻟﺮﺍﺯﻱ ﻓﻲ ﻓﻮﺍﺋﺪﻩ ‏(355 ‏) ﻭﺍﺑﻦ ﻋﺴﺎﻛﺮ
ﻓﻲ ﺗﺎﺭﻳﺦ ﺩﻣﺸﻖ ‏( 31/27 28- ‏) ﻭ ‏( 40/179 180- ‏) ﻣﻦ ﻃﺮﻕ ﻋﻦ
ﺍﻟﻮﻟﻴﺪ ﺑﻦ ﻣﺴﻠﻢ، ﻭﺍﻟﻄﺒﺮﺍﻧﻲ ﻓﻲ ﺍﻟﻤﻌﺠﻢ ﺍﻟﻜﺒﻴﺮ ‏( /18 ﺭﻗﻢ 622 ‏)
ﻭﺍﻷﻭﺳﻂ ‏( ﺭﻗﻢ66 ‏) ﻭﻣﺴﻨﺪ ﺍﻟﺸﺎﻣﻴﻴﻦ ‏(/1 ﺭﻗﻢ786 ‏) – ﻭﻋﻨﻪ
ﺃﺑﻮﻧﻌﻴﻢ ﻓﻲ ﻣﺴﺘﺨﺮﺟﻪ ﻋﻠﻰ ﻣﺴﻠﻢ ‏( 1/37 ‏) ﻭﺍﺑﻦ ﻋﺴﺎﻛﺮ ﻓﻲ
ﺗﺎﺭﻳﺦ ﺩﻣﺸﻖ ‏( 64/374 375- ‏) ﻭﺍﻟﻤﺰﻱ ﻓﻴﺘﻬﺬﻳﺐ ﺍﻟﻜﻤﺎﻝ
‏( 31/539 ‏) – ﻣﻦ ﻃﺮﻳﻖ ﺇﺑﺮﺍﻫﻴﻢ ﺑﻦ ﻋﺒﺪ ﺍﻟﻠﻪ ﺑﻦ ﺍﻟﻌﻼﺀ ﺑﻦ ﺯﺑﺮ،
ﻭﺍﻟﺤﺎﻛﻢ ﻓﻴﺎﻟﻤﺴﺘﺪﺭﻙ ‏( 1/97 ‏) ﻣﻦ ﻃﺮﻳﻖ ﻋﻤﺮﻭ ﺑﻦ ﺃﺑﻲ ﺳﻠﻤﺔ
ﺍﻟﺘﻨﻴﺴﻲ ﻭﺗﻤﺎﻡ ﺍﻟﺮﺍﺯﻱ ﻓﻲ ﺍﻟﻔﻮﺍﺋﺪ ‏( 225 ‏) ﻣﻦ ﻃﺮﻳﻖ ﻣﺮﻭﺍﻥ ﺑﻦ
ﻣﺤﻤﺪ ﺍﻟﻄﺎﻃﺮﻱ ﻭﻋﻠﻘﻪ ﺍﺑﻦ ﻋﺴﺎﻛﺮ ﻓﻲ ﺗﺎﺭﻳﺨﻪ ‏( 64/375 ‏) ﻋﻠﻰ
ﺯﻳﺪ ﺑﻦ ﻳﺤﻴﻰ ﺑﻦ ﻋﺒﻴﺪ ﺍﻟﺪﻣﺸﻘﻲ ﺧﻤﺴﺘﻬﻢ ﻋﻦ ﻋﺒﺪ ﺍﻟﻠﻪ ﺑﻦ
ﺍﻟﻌﻼﺀ ﺑﻦ ﺯﺑﺮ ﺣﺪﺛﻨﻲ ﻳﺤﻴﻰ ﺑﻦ ﺃﺑﻲ ﺍﻟﻤﻄﺎﻋﻘﺎﻝ : ﺳﻤﻌﺖ ﺍﻟﻌﺮﺑﺎﺽ
ﺑﻦ ﺳﺎﺭﻳﺔ، ﻓﺬﻛﺮﻩ ﻣﺮﻓﻮﻋﺎ _ ﺍﻟﺘﺨﺮﻳﺞ ﻣﺴﺘﻔﺎﺩ ﻣﻦ ﺃﺣﺪ ﺍﻹﺧﻮﺓ _
ﻭﻗﺪ ﺃﺛﺒﺖ ﺍﻟﺒﺨﺎﺭﻱ ﺳﻤﺎﻉ ﻳﺤﻴﻰ ﺑﻦ ﺃﺑﻲ ﻣﻄﺎﻉ ﻣﻦ ﺍﻟﻌﺮﺑﺎﺽ ﺑﻦ
ﺳﺎﺭﻳﺔ ﻓﻲ ﺍﻟﺘﺎﺭﻳﺦ ﺍﻟﻜﺒﻴﺮ ‏( /8 306 ‏) ﻭﻫﺬﺍ ﻣﻨﻪ ﺑﻤﺜﺎﺑﺔ ﺗﺼﺤﻴﺢ
ﻟﻠﺤﺪﻳﺚ
ﻭﻛﺬﺍ ﺃﺛﺒﺖ ﺳﻤﺎﻋﻪ ﻣﻨﻪ ﻳﻌﻘﻮﺏ ﺑﻦ ﺳﻔﻴﺎﻥ ﺍﻟﻔﺴﻮﻱ ﻓﻲ ﺍﻟﻤﻌﺮﻓﺔ
ﻭﺍﻟﺘﺎﺭﻳﺦ ‏( 2/345 ‏) ﻭ ﻭﺃﺑﻮ ﻧﻌﻴﻢ ﻓﻲ ﺍﻟﻤﺴﺘﺨﺮﺝ ﻋﻠﻰ ﺻﺤﻴﺢ
ﻣﺴﻠﻢ ‏( 1/36 (
এ হাদীসকে অনেকে দুর্বল বলার
চেষ্টা করেন। ভাবতে আশ্চর্য লাগে এদের
বিচার ক্ষমতার দৈন্য নিয়ে। অথচ এ
হাদীসকে বিশুদ্ধ বলে মত দিয়েছেন:
1_ ﺍﻻﻣﺎﻡ ﺍﻟﺘﺮﻣﺬﻱ
2- ﺍﻻﻣﺎﻡ ﺍﺑﻮﺩﺍﻭﺩ
-3 ﺍﻻﻣﺎﻡ ﺍﺑﻦ ﻋﺒﺪ ﺍﻟﺒﺮ
-4ﺍﻻﻣﺎﻡ ﺍﻟﺤﺎﻛﻢ
-5 ﺍﻻﻣﺎﻡ ﺍﺑﻦ ﺣﺒﺎﻥ
-6 ﺍﻻﻣﺎﻡ ﺍﻟﺒﻐﻮﻱ
-7 ﺍﻻﻣﺎﻡ ﺍﻟﻤﻨﺬﺭﻱ
-8 ﺍﻻﻣﺎﻡ ﺍﺑﻦ ﺗﻴﻤﻴﺔ
ﺍﻟﻤﺼﺪﺭ : http://majles.alukah.net/t22422/
#ixzz35pU9KAGJ
শেষ কথা হলো: ২০ রাকাত
তারাবী চলে আসছে হযরত উমরের সময়কাল
থেকে। তিনি খোলাফায়ে রাশিদীনের
মহান সদস্য। তাঁর শুরু করা আমলের উপর আমাদের
আমল করা জরুরি। কেননা নবীজী উক্ত
হাদীসের মাধ্যমে আমাদেরকে সে নির্দশ
দিয়ে গেছেন। এ্সই নির্দেশের উপর আমল
করা সুন্নত।
আল্লাহর রাসূল তাঁর উপাধী দিয়েছেন: আল
ফারুক। যার অর্থ: সত্য-মিথ্যার মাঝে পার্থক্য
নির্ণয়কারী। শয়তান ভয় পেতো হযরত উমরকে।
তিনি যে পথে চলতেন সে পথে শয়তান
চলতে ভয় পেতো। বদরের পরামর্শ সভার
কথা মনে পড়ে? আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু
আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং হযরত আবু বকরের
রায় ছিলো: মুক্তিপণ নিয়ে বদর যুদ্ধের
বন্দিদের ছেড়ে দেয়া। আর হযরত উমরের মত
ছিলো: এদেরকে শেষ করে দেয়া। কথন এ
ব্যাপারে আসমানী ওহী নাযিল
হয়েছিলো হযরত উমরের পক্ষে।
এমন উমরের (রা.) প্রচলিত ২০ রাকাত তারাবীর
বিরোধিতা করা জঘন্যতম ধৃষ্টতা ছাড়া আর
কী হতে পারে?
আহলে হাদীস বন্ধুরা বলে থাকেন:
তারাবী ৮ রাকাত। আমরা বলবো: উপরের
আলোচনা মনোযোগ দিয়ে পড়ে থাকলে ২০
রাকাতের
দিকে আপনাদেরকে ফিরে আসতে হবে!
হযরত উমরের চেয়ে বেশি নবীপ্রেমিক
কে শুনি?
তা ছাড়া এই আহলে হাদীস আসলে কারা? এ
সংস্থা বা সংগঠনের ইতিহাস ও ইতিবৃত্তান্ত
কী?
এদের জন্ম বৃটিশদের হাতে।
এদেরকে বৃটিশরা দুধকলা খাইয়ে লালন-
প্রতিপালন করেছে ইসলামের বিভিন্ন বিধি-
বিধানের মাঝে ফেতনা নামের জীবাণুর
অনুপ্রবেশ ঘটানোর জন্যে। বুকে হাত
রেখে কে বলতে পারবে: বৃটিশ শাসনামলের
আগে ‘আহলে হাদীস’ বলতে কোনো কিছু
ছিলো?
এরা ধীরে ধীরে ধ্বংসাত্মক হয়ে উঠছে।
মানুষের ঈমান আক্বিদা নিয়ে খেল-
তামাশা শুরু করেছে।
এদের ব্যাপারে সাবধান না হলে এ
ফেতনা আরো ভয়াবহ আকার নিতে পারে।
আল্লাহ আমাদেরকে সত্য উপলব্ধি করার
এবং তার উপর আমল করার তাওফিক দিন।
_শায়েখ ইয়াহইয়া ইউসুফ নদভী

ফেসবুকে যোগাযোগ করুন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s