তোমরা যারা ফেইস বুকে এসে গায়রে মুকাল্লিদের পাল্লায় পড়েছ !!

image

আপনি জানেন কি?
পৃথিবীতে প্রথম গোনাহ ছিল তাকলীদ তরক করা!
আর গায়রে মুকাল্লিদদের ইমাম হল ইবলিশ?
তাকলীদ কাকে বলে?
আম ব্যক্তি মুজতাহিদ ব্যক্তির কথাকে দলীল চাওয়া ছাড়া মেনে নেয়াকে বলা হয়। ধর্মীয় বিষয়ে প্রতিটি আম ব্যক্তির জন্য এই তাকলীদ জরুরী।
কিন্তু আম ব্যক্তি হয়েও মুজতাহিদের দলীল নিয়ে জগাখিচুরী পাকানো গায়রে মুকাল্লিদের কাজ।
আপনি জেনে অবাক হবেন যে, পৃথিবীর মাঝে সর্বপ্রথম গায়রে মুকাল্লিদের নাম ইবলিশ।
অবাক হচ্ছেন? দলীল দিচ্ছি-
আল্লাহ তাআলা হযরত আদম আঃ কে সৃষ্টি করার পর উপস্থিত সবাইকে আদেশ দিলেন হযরত আদম আঃ কে সেজদা করার জন্য। দলীল চাওয়া ছাড়া নিরংকুশ তাকলীদ করে সমস্ত ফেরেশতাগণ আদম আঃ কে সেজদা করলেন। সেজদা করার ক্ষেত্রে সমস্ত ফেরেশতাগণের ইজমা হয়ে গেল।
কিন্তু বেঁকে বসল ইবলিশ। তাকলীদ ছেড়ে দিয়ে এ কাজ করার জন্য সে দলীল তলব করল আল্লাহ তাআলার কাছে। বলতে লাগলঃ “আমি আগুণের তৈরী, মাটির তৈরীকে সেজদা করবো কেন? আগুণ মাটির উপর শ্রেষ্ঠত্বের কি দলীল আছে?”
ব্যস, সে অভিশপ্ত হয়ে গেল। কি কারণে অভিশপ্ত হল? মৌলিকভাবে একটিমাত্র কারণ। সেটি হল আম ও জাহিল হয়েও ফেরেশতাদের মত তাকলীদ না করে গায়রে মুকাল্লিদ সেজেছে। আম ও জাহিল হয়েও দলীলের পিছনে ছুটেছে।
গায়রে মুকাল্লিদ ইবলিশের আল্লাহ তাআলা ৪টি বদগুণের কথা উল্লেখ করলেন পবিত্র কুরআনে-
وَإِذْ قُلْنَا لِلْمَلَائِكَةِ اسْجُدُوا لِآدَمَ فَسَجَدُوا إِلَّا إِبْلِيسَ أَبَى وَاسْتَكْبَرَ وَكَانَ مِنَ الْكَافِرِينَ (34
এবং যখন আমি হযরত আদম (আঃ)-কে সেজদা করার জন্য ফেরেশতাগণকে নির্দেশ দিলাম, তখনই ইবলিশ ব্যতিত সবাই সিজদা করলো। সে (নির্দেশ) পালন না করে চেহারা ঘুরিয়ে নিল, এবং অহংকার প্রদর্শন করল। ফলে সে অস্বিকারকারীদের অন্তর্ভূক্ত হয়ে গেল। {সূরা বাকারা-৩৪}
তাকলীদ তরককারী গায়রে মুকাল্লিদের ৪টি বদগুণ আল্লাহ তাআলা বললেন-
১- হক না মেনে মাথা ঘুরিয়ে নেয়।
২- অহংকার করে।
৩- অস্বিকারকারী হয়।
৪- ফেরেশতাদের ইজমার বিরুধীতা করল।
ভাল করে খেয়াল করুন! একটু ভাবুন! চিন্তা করুন!
এ ৪টি সিফাত বর্তমান গায়রে মুকাল্লিদ লা-মাযহাবীদের মাঝে পরিপূর্ণ আছে কি না? সুনিশ্চিতভাবেই তা পাবেন। কারণ এ ৪টি কাজ না করে কেউ পরিপূর্ণ গায়রে মুকাল্লিদ হতেই পারবে না।
সে হক থেকে মাথা ঘুরিয়ে নিবেই।
সে ইজমা অস্বিকার করবেই।
সে বিজ্ঞ উলামা, মুজতাহিদ, ফক্বীহ মুহাদ্দিস, মুফতীদের চেয়ে নিজেকে বড় মনে করবেই।
সে হাজার বছরের আমলকৃত সহীহ সুন্নত নির্ভর আমল অস্বিকার করবেই।
“গায়রে মুকাল্লিদদের আসল গুরু ইবলিশ” একথা স্বীকার না করে ধোঁকা দেয়ার জন্য প্রচার করে বেড়াচ্ছে রাসূল সাঃ নাকি গায়রে মুকাল্লিদদের ইমাম।
এরকম জালিয়াত ও প্রতারক চক্র থেকে সকলে সাবধান। আল্লাহ তাআলা ফিতনাবাজ গায়রে মুকাল্লিদদের প্রতারণা থেকে সাধারণ মুসলিম উম্মাহের দ্বীন ও ঈমানকে হিফাযত করুন। আমীন।
লেখক Lutfor Farazi ভাই

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s