আহলে হাদীস নামধারী ফিৎনাবাজদের বিরুদ্ধে কিছু লিখতে বাধ্য হলাম!

আহলে হাদীস নামধারী ফিৎনাবাজদের বিরুদ্ধে কিছু লিখতে বাধ্য হলাম!

“বাংলাদেশের সরকার (হাসিনা) মুসলিম, তাই তার আনুগত্য করা সকলের উপর ফরয : আহলে হাদীসদের নেতা মতিউর রহমান মাদানী”

“হানাফী মাযহাবের লোকেরা নাভীর নীচে হাত বাঁধে বিশেষ অঙ্গ চুলকানীর সুবিধার্থে : জনৈক আহলে হাদীস”

“আফগানিস্তানে যারা জিহাদ করছে তারা খারেজী : শায়েখ (?) মতিউর রহমান মাদানী”

আহলে হাদীসদের অনেকেই ইমাম আবু হানীফা রাহিমাহুল্লাহকে গালি-গালাজ করে!! কেউ কেউ বিশ্ব ইজতেমাকে বিশ্ব ইস্তেন্জা বলে কটাক্ষ করেছে!! ;-> যদিও নিজেরাই প্রতি বছর ৩/৪ দিন ব্যপি ইজতেমা করে!

সরকারের আনুগত্য সংক্রান্ত ফতওয়ার ভিডিও আপলোড দিয়েছিল হাসিনার মেয়ে পুতুল!! সৌদি বাদশা আব্দুল্লাহকে (মূলত আব্দুল আম্রিকা) তারা আমীরুল মুমিনীন বলে! অথচ এই জানোয়ার ওবামার পা চাটে দিনে-রাতে!

আমাকে ভুল বোঝবেন না। সব আহলে হাদীসের লোকেরাই যে এরকম তা কিন্তু না। কিন্তু কিছু লোকের কাজ মারাত্মক বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে।

নিজেরা সারাদিন চিল্লায় অন্ধ অনুসরণ করা যাবে না। অথচ আলবানীর ফতওয়ার বাহিরে তারা এক চুল নড়তেও নারাজ।

এজন্য এক ভাই মন্তব্য করেছিলেন, মাযহাব মোট পাঁচটি। ১. হানাফী ২. মালিকী ৩. শাফিঈ ৪. হাম্বলী ৫. আলবানী

আহলে হাদীসদের সহীহ হাদীসের প্রতি অনুরাগকে আমি অত্যন্ত ভাল চোখে দেখি। এমনকি আমি নিজেও সহীহটা মানতে চেষ্টা করি, হোক সেটা যেকোন মাযহাবের দলীল। শির্ক-বিদ’আতের বিরুদ্ধে তাদের বলিষ্ঠ ভূমিকা প্রশংসনীয়। কিন্তু সরকারের দালালী করা, মুজাহিদীনদের খারেজী বলা, অযথা বাড়াবাড়ি করাকে ঘৃণা করি।

ওয়াল্লাহি! এদেরকে অনেক ভালোবাসতাম। এখনো ভালোবাসি। কিন্তু এদের কিছু ব্যপার আপত্তিকর। দু’চারটা হাদীসের বাংলা অনুবাদ পড়েই মনে করে বিরাট কিছু হয়ে গেছে।

তবে এদের মধ্যেও অনেকেই আছেন যারা সত্যকে সত্য ও মিথ্যাকে মিথ্যা বলতে পারেন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s