শয়তানের ধোকা

শয়তান মানুষকে এমনভাবে আশ্বস্ত করে যে, তার
জীবন অনেক দীর্ঘ এবং তার কাছে সৎকর্ম ও তওবা করার
যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। তাই সে যখন নামাজ পড়ার
ইচ্ছা পোষণ করে শয়তান তাকে বলে, তুমি তো এখনও
সেই ছোট রয়ে গেছ, যখন বড় হবে নামাজ পড়বে।
এবং যখন আত্মশুদ্ধিকারী ব্যক্তি আত্মশুদ্ধি করতে চায়
শয়তান তাকে বলে এটাতো তোমার প্রথম মওসুম :
আগামী বৎসরের জন্যে তুমি অপেক্ষা কর। আর যখন কোন
মানুষ কোরআন পড়তে চায় শয়তান
তাকে বলে তুমি সন্ধ্যায় পড়বে।
এবং সন্ধ্যা হলে বলে তুমি আগামীকাল পড়বে।
এবং আগামীকাল বলে তুমি পরশু পড়বে, এভাবে মৃত্যু
পর্যন্ত অপরাধকারী তার পাপের ওপর অবশিষ্ট থাকবে।
আর এই প্রক্রিয়ায় শয়তান কিছু কাফেরকে ইসলাম
থেকে নিবৃত্ত করে রাখে।
আর সময় নষ্ট না করে আজ থেকেই
বিতাড়িত শয়তান থেকে আল্লাহর নিকট আশ্রয়
চান..সময় থাকতে সাবধান!!!
জীবনের শেষ সময় চলে আসলে আল্লাহ্
তখন কাউকে অবকাশ দিবেন না..

ওই দিন কাঁদবেন, যখন
উপলব্ধি করবেন জীবন শেষ
হয়ে এলো অথচ কোনও নেক কাজ
করা হলো না।

ইয়া আল্লাহ্, বিতাড়িত শয়তানের পরোচনা থেকে আমাদেরকে বাচিয়ে রাখুন, আমাদেরকে ক্ষমা করে দিন।
আমাদেরকে নামাজ কায়েম কারী বানান।
আমীন

image

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s